Tuesday, May 21, 2024
টেক নিউজরিভিউ

১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল | কম দামে ভালো গেমিং ফোন

বর্তমান সময়ে গেমিং(Gaming) বা গেমস প্রায় সব বয়সী মানুষেরই পছন্দের তালিকায় থাকে। মাঝে মাঝে আমরা দেখে অবাক হয়ে যাই যে, বয়োজ্যেষ্ঠ মানুষজনও গেমস খেলছে! বিশেষ করে কিশোর-কিশোরী এবং তরুণ-তরুণীরাতো গেমসের প্রতি রীতিমতো আসক্ত। প্রায়ই দেখা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, অনলাইন মিডিয়া সহ বিভিন্ন মাধ্যমেই তারা ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল তথা কম দামে ভালো গেমিং ফোন খুঁজছে। আজকে আমরা তেমনই কিছু মোবাইল সম্পর্কে আলোচনা করবো যেগুলোর মূল্য ১০-১২ হাজার টাকার মধ্যে এবং যেগুলো গেমিংয়ের জন্য উপযুক্ত।

রিয়েলমি ন্যারযো 50i | ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল

রিয়েলমি ন্যারযো 50i

২০২২ সালের জনপ্রিয় কিছু ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল এর ভিতর গেমিংয়ের জন্য উপযুক্ত অন্যতম একটি মোবাইল হলো রিয়েলমি ন্যারযো 50i। এই বছরের জনপ্রিয় কিছু কমদামী অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলোর ভিতর একটি হলো রিয়েলমি ন্যারযো 50i। বাজেট উপযোগী এবং আকর্ষণীয় সব ফিচার থাকায় বর্তমান বাজারে এর চাহিদা অনেক বেশি। 

বাহ্যিক দিক থেকে বা ডিজাইনগত দিক থেকে রিয়েলমি ন্যারযো 50i অনেক বেশি দৃষ্টিনন্দন এবং নান্দনিক। এটির মূলত দুটি রঙ বা Colour ভার্সন রয়েছে। সেগুলো হলো Carbon Black এবং Mint Green। তন্মধ্যে Mint Green ভার্সনটির ডিজাইন অনেক বেশি আকর্ষণীয় এবং চমৎকার।

এই ডিভাইসটির বডি ডাইমেনশন(Dimension) হচ্ছে ১৬৫.২ × ৭৬.৪ × ৮.৯ মি.মি (৬.৫০ × ৩.০১ × ০.৩৫ ইঞ্চি)। আর ডিসপ্লে হচ্ছে ৬.৫”, IPS LCD টাচস্ক্রিন এবং ডিসপ্লে রেজুলেশন ৭২০ × ১৬০০ পিক্সেলস(Pixels)। এর ক্যামেরা পারফরম্যান্স ও অনেক ভালো, ৮ মেগাপিক্সেল AI HD Camera। এটি খুবই হালকা একটি ডিভাইস। অর্থাৎ, আপনি সহজেই গেমিং করতে পারবেন। 

রিয়েলমি ন্যারযো 50i ডিভাইসে অ্যান্ড্রয়েড ১১, রিয়েলমি Go UI অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়। এর ব্যাটারি সক্ষমতা প্রায় ৫০০০ mAh। 

ডিভাইসটির মূলত দুই রকম ভার্সন রয়েছে। একটি হচ্ছে,২জিবি RAM/৩২জিবি ROM। আরেকটি হচ্ছে ৪জিবি RAM/৬৪ জিবি ROM। এর মধ্যে গেমিংয়ের জন্য আপনার উচিত ৪/৬৪ ভার্সনটিকেই বেছে নেওয়া। গেমিংয়ের জন্য ৪/৬৪ মেমোরি যথেষ্ট ভালো। তাছাড়া ডিভাইসটিতে শক্তিশালী Octra-Core প্রসেসর থাকায়, বিভিন্ন হাই-কোয়ালিটি গেমস খেলার জন্যও এটি উপযুক্ত।

এই ডিভাইসটির মূল্য মাত্র ১১,০৯০ টাকা। সুতরাং, আপনি যদি কম দামের মধ্যে ভালো পারফরম্যান্স সমৃদ্ধ এবং গেমিং মোবাইল চান, তাহলে রিয়েলমি ন্যারযো 50i আপনার জন্য একটি ভালো বিকল্প হতে পারে। 

ওয়ালটন প্রিমো R8 | ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল

ওয়ালটন প্রিমো R8

গেমিংয়ের জন্য উপযুক্ত ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল এর থেকে আরেকটি উল্লেখযোগ্য মোবাইল হলো ওয়ালটন প্রিমো R8। বাংলাদেশী এই স্মার্টফোনটির বর্তমান বাজার মূল্য মাত্র ১১,৪৯০ টাকা, যেখানে আপনি পাবেন অসাধারণ সব ফিচার্স(Features)।

ওয়ালটন প্রিমো R8 এর বডি ডাইমেনশন হচ্ছে ১৬৪.৫ × ৭৫.৮ × ৮.৯ মি.মি। সাথে রয়েছে ৬.৫” IPS LCD টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে টেকনোলজি। অর্থাৎ, এটি খুবই হালকা একটি ডিভাইস। আর ডিসপ্লে রেজুলেশন হচ্ছে HD+ ১৬০০ × ৭২০ পিক্সেলস। ডিভাইসটির মূলত তিনটি রঙ বা Colour ভার্সন রয়েছে, যথা : Ocean Green, Gradient Purple, Magic Blue। 

এই মোবাইলটির সাথে আপনি আরো পাচ্ছেন ১৩+২ মেগাপিক্সেল রিয়ার(Rear) ক্যামেরা এবং ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। ডিভাইসটির অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ১১। 

ওয়ালটন প্রিমো R8 এ আপনি আরো পাবেন, ৪জিবি RAM এবং ৬৪জিবি ROM তথা ইন্টারনাল স্টোরেজ। তাছাড়া রয়েছে, ২.৩ গিগাহার্জ Octa-Core প্রসেসর। তাই, বিভিন্ন রকম হাই-কোয়ালিটি গেমিং সফটওয়্যারও সহজেই ব্যবহার করা যায়।

ডিভাইসটিতে আপনি আরো পাবেন ৫০০০ mAh লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি সক্ষমতা। বিভিন্ন গেমিং সফটওয়্যার ব্যবহার করেও অনায়সেই ৭-৮ ঘণ্টা আপনি ব্যাটারি ব্যাকাপ(Backup) পাচ্ছেন। তাই, কম দামে ভালো গেমিং মোবাইল চাইলে, আপনি ওয়ালটন প্রিমো R8 ব্যবহার করে দেখতেই পারেন।

টেকনো স্পার্ক 7 | ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল

টেকনো স্পার্ক 7

আপনি যদি ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল এবং কম দামে ভালো গেমিং ফোন কিনতে চান, সেক্ষেত্রে টেকনো স্পার্ক 7 হতে পারে আপনার আরেকটি পছন্দের বিকল্প। বহুল জনপ্রিয় এই স্মার্টফোনটির তিনটি ভার্সন রয়েছে, যথা :

  • ২জিবি RAM এবং ৩২ জিবি ROM
  • ৩ জিবি RAM এবং ৬৪ জিবি ROM 
  • ৪ জিবি RAM, ৬৪ জিবি ROM

তবে গেমিংয়ের জন্য সবচেয়ে উত্তম হচ্ছে (৪/৬৪) ভার্সনটি। কারণ আপনার RAM এবং ROM তথা ইন্টারনাল স্টোরেজ যত বেশি হবে তত বেশি আপনি হাই-কোয়ালিটি এবং হাই স্টোরেজ সম্পন্ন গেইমগুলো আপনার মোবাইলে খেলতে পারবেন। এই ভার্সনটির বর্তমান মূল্য মাত্র ১১,৯৯০ টাকা।

টেকনো স্পার্ক 7 এর বডি ডাইমেনশন হচ্ছে, ১৬৪.৮ × ৭৬.১ × ৯.৫ মি.মি(৬.৪৯ × ৩ × ০.৩৭ ইঞ্চি)। এর সাথে রয়েছে ৬.৫” IPS LCD টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে টেকনোলজি। ডিসপ্লে রেজুলেশন হচ্ছে HD+ ১৬০০ × ৭২০ পিক্সেলস। ক্যামেরা পারফরম্যান্সও অসাধারণ। এখানে আপনি পাচ্ছেন, ১৬ মেগাপিক্সেল AI ব্যাক ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

ডিভাইসটির মূলত তিনটি রঙ বা Colour ভার্সন রয়েছে, যথা : Morpheus Blue, Spruce Green, Magnet Black৷ অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভার্সনটি ব্যবহার করা হয়। সাথে রয়েছে ফেস আনলক এবং ফিঙ্গারপ্রিন্টের সুবিধা।

টেকনো স্পার্ক 7 এ আপনি পাবেন ৬০০০ mAh লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি সক্ষমতা। কোনো রকম চার্জিং ছাড়া গেমিং করেও ৯-১০ ঘণ্টা আপনি এটি ব্যবহার করতে পারবেন। তাছাড়া, MediaTek Helio A25 চিপসেট এবং ২.৫ গিগাহার্জ Octa-Core প্রসেসর থাকায়, গেইমিংয়ের ক্ষেত্রে আপনি পাবেন অসাধারণ পারফরম্যান্স।

ইনফিনিক্স হট ৮ | ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল

ইনফিনিক্স হট ৮

কম দামে ভালো গেমিং মোবাইলের মধ্যে আরেকটি অন্যতম ডিভাইস হলো ইনফিনিক্স হট ৮। এই মোবাইলটির বডি ডাইমেনশন হচ্ছে, ১৬৫ × ৭৬.৩ × ৮.৭ মি.মি(৬.৫০ × ৩.০০ × ০.৩৪ ইঞ্চি)। অর্থাৎ, এটি সহজেই বহনযোগ্য। এছাড়াও রয়েছে ৬.৫২” IPS LCD ডিসপ্লে, রেজুলেশন ৭২০ × ১৬০০ পিক্সেলস।

ডিভাইসটির ক্যামেরা পারফরম্যান্সও সন্তোষজনক। এখানে আপনি পাবেন, ট্রিপল ১৩+২ মেগাপিক্সেল+QVGA ব্যাক ক্যামেরা এবং ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। তাছাড়া, ইনফিনিক্স হট ৮ এর বেশ কয়েকটি রঙ বা Colour ভার্সন রয়েছে, যেমন : Quetzal Cyan, Cosmic Purple, Midnight Black, Shark Grey।

ইনফিনিক্স হট ৮ ডিভাইসের রয়েছে লিথিয়াম-পলিমার ৫০০০ mAh ব্যাটারি সক্ষমতা। এখানে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০, XOS ৫.০ ব্যবহৃত হয়। শক্তিশালী ১.৮ গিগাহার্জ Octa-Core প্রসেসর থাকায়, সাধারণত গেমিং পারফরম্যান্স খুবই ভালো হয় এবং গেমাররা গেম খেলে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে।

এই ডিভাইসটির মূলত দুইটি ভার্সন রয়েছে। সেগুলো হলো :

  • ২জিবি RAM এবং ৩২জিবি ROM
  • ৪জিবি RAM এবং ৬৪জিবি ROM

তবে আপনি যেহেতু গেমিং পারফরম্যান্স ভালো এমন মোবাইল খুঁজে থাকেন, সেক্ষেত্রে আপনার উচিত ইনফিনিক্স হট ৮(৪/৬৪) ভার্সনটিই বেছে নেওয়া। কারণ এক্ষেত্রে আপনি অনেকগুলো গেমিং সফটওয়্যার আপনার ডিভাইসে রাখতে পারবেন এবং সফটওয়্যারগুলোর পারফরম্যান্সও ভালো হবে। বর্তমানে, এই ভার্সনটির বাজারমূল্য ১১,৪৯০ টাকা।

সুতরাং, আপনি যদি ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল চান, যার ভালো গেমিং পারফরম্যান্স ভালো ,সেক্ষেত্রে ইনফিনিক্স হট ৮ আপনার জন্য একটি ভালো বিকল্প হতে পারে।

ভিভো Y11 | ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল

ভিভো Y11

সাম্প্রতিক সময়ে ১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল এবং কম দামে ভালো গেমিং ফোন হিসেবে ভিভো Y11 স্মার্টফোন যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছে। যদিও ডিভাইসটি বেশ কয়েক বছর আগে লঞ্চ করা হয়, তবে এখনো গেমিংয়ের জন্য এটি বেশ জনপ্রিয়৷

ভিভো Y11 অত্যন্ত হালকা একটি ডিভাইস। এর বডি ডাইমেনশন হচ্ছে ১৫৯.৪ × ৭৬.৮ × ৮.৯ মি.মি(৬.২৮ × ৩.০২ × ০.৩৫ ইঞ্চি)। আরো রয়েছে ৬.৩৫” IPS LCD টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন হচ্ছে ৭২০ × ১৫৪৪ পিক্সেলস। এছাড়াও রয়েছে, ১৩+২ মেগাপিক্সেল ডুয়েল(Dual) ব্যাক ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা।

ডিভাইসটি অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ এবং funtouch ৯.১ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে। সেই সাথে আপনি পাচ্ছেন ৫০০০ mAh লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি সক্ষমতা৷

ভিভো Y11 এর মূলত দুটি ভার্সন রয়েছে, যথা :

  • ২জিবি RAM, ৩২ জিবি ROM
  • ৩ জিবি RAM, ৩২ জিবি ROM

এর মধ্যে গেমিংয়ের জন্য ভিভো Y11(৩/৩২) ভার্সনটিই সর্বাধিক উপযুক্ত, যার বর্তমান বাজার মূল্য ১১,৯৯০ টাকা। যদিও এর ইন্টারনাল স্টোরেজ কিছুটা কম হওয়ায় হয়তো এখানে অতিরিক্ত হাই-কোয়ালিটি গেম খেলার ক্ষেত্রে কিছুটা ল্যাগিং(Lagging) করার ঝুঁকি থাকে। কিন্তু ডিভাইসটিতে Qualcomm SDM439 Snapdragon 439 চিপসেট এবং ২.৩ গিগাহার্জ Octa-Core প্রসেসর থাকায়, গেমিং পারফরম্যান্স সচারাচর ভালোই হয়ে থাকে।

শেষ কথা

১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল বা কম দামে ভালো গেমিং ফোন আরো অনেকগুলোয় রয়েছে। তবে গেমিং পারফরম্যান্স ও অন্যান্য সার্বিক দিক বিবেচনায় এই ডিভাইসগুলোয় এগিয়ে থাকবে। তবে এক্ষেত্রে একটি বিষয় মনে রাখা জরুরী যে মোবাইল ফোনের দাম সবসময় এক থাকেনা, দেখা যায় একমাস আগে যে মূল্য ছিলো একমাস পর তা আরো কমে গেছে। আবার অনেক সময় অনেক দোকান বা বিভিন্ন অনলাইন দোকানেও দেখা যায় ফোনের মূল্যের উপর ডিসকাউন্ট দেওয়া হচ্ছে। তাই গেমস পছন্দকারী মানুষদের উচিত সবসময় এগুলো খোঁজ-খবর রাখা, যাতে করে সুযোগ এলেই বাজেটের মধ্যে ভালো গেমিং ফোনটি কেনা যায়।

তৌহিদ

ABOUT TOUHID

One thought on “১০-১২ হাজার টাকার মোবাইল | কম দামে ভালো গেমিং ফোন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *