Sunday, April 14, 2024
টেক নিউজরিভিউ

রেডমি ৯ | রেডমি ৯ বাংলাদেশ প্রাইস

মোবাইল ফোন বর্তমানে আমাদের কাছে শুধুমাত্র যোগাযোগের মাধ্যমই নয়, বরং আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনের বেশিরভাগ গুরুত্বপূর্ণ কাজই এখন মোবাইল ফোনের মাধ্যমে করে থাকি। তাই এটি এখন আমাদের একটি আগ্রহের জায়গাতে পরিণত হয়েছে। আমাদের মধ্যে অনেকেই প্রায়ই অপেক্ষায় থাকেন কখন বাজারে আকর্ষণীয় ফিচার সম্বলিত নতুন মডেল বা নতুন আপডেটের কোনো মোবাইল আসবে। আজকে আমরা এমনই একটি মোবাইল নিয়ে আলোচনা করবো যা সাম্প্রতিক সময়ে মানুষের মাঝে খুব সাড়া ফেলেছে। সেটি হলো রেডমি ৯। আজকে আমরা রেডমি ৯, এর ভালো দিক, মন্দ দিক, রেডমি ৯ বাংলাদেশ প্রাইস ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো।

অবশ্যই পড়বেন:

ইমেইল মার্কেটিং কী

কন্টেন্ট মার্কেটিং কী

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কী

গ্রাফিক্স ডিজাইন কী

রেডমি ৯ | রেডমি ৯ বাংলাদেশ প্রাইস

রেডমি ৯

রেডমি ৯ জিওমি প্রতিষ্ঠানের একটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন যা প্রথম লঞ্চ(Launch) করা হয় ২০২০ এর মাঝামাঝি সময়ে। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী এর ছয়টি ভার্সন রয়েছে। যদিও সবগুলো ভার্সন সবদেশে ব্যবহার যোগ্য নয়। যেমন বর্তমানে বাংলাদেশে রেডমি ৯ এর কেবলমাত্র দুটি ভার্সন বাজারে পাওয়া যায়। 

রেডমি ৯ ভিন্ন ভিন্ন রঙ বা কালারে(Colour) পাওয়া যায় যেমন কার্বন গ্রে(Grey) বা ধূসর, সানসেট পার্পল(Purple) বা বেগুনি, ওশ্যান গ্রীন(Ocean Green) বা সবুজ ইত্যাদি। 

রেডমি ৯ বাংলাদেশ প্রাইস বা মূল্য

রেডমি ৯ বাংলাদেশ প্রাইস

বিশ্বব্যাপী ২০২০ সালে লঞ্চ করা হলেও, বাংলাদেশে রেডমি ৯ প্রথম লঞ্চ হয় ২০২১ সালে। লঞ্চ হওয়ার পরপরই এটি মানুষের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। বর্তমানে বাংলাদেশে রেডমি ৯ এর যে দুটি ভার্সন পাওয়া যায় তাদের মধ্যে একটিতে আপনি পাবেন ৩ জিবি র‍্যাম(RAM) ও ৩২ জিবি রোম(ROM), যার অফিসিয়াল মূল্য হচ্ছে ১৩,৯৯৯ টাকা।

আর আরেকটি ভার্সনে আপনি পাবেন ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি রোম। রেডমি ৯(৪/৬৪) বাংলাদেশ প্রাইস বর্তমানে ১৪,৯৯৯ টাকা। 

রেডমি ৯ এর উপকারী দিক

  • বাজেট উপযোগী মোবাইল। 
  • ৬.৫৩” আইপিএস(IPS) এলসিডি(LCD) ডিসপ্লে। 
  • হ্যাডফোন বা অডিও ডিভাইসের সাথে সংযুক্ত করার জন্য ৩.৫ মি.মি. হ্যাডফোন জ্যাক রয়েছে। 
  • মোবাইল বডির পিছনের দিকে মাল্টিপল(Multiple) ক্যামেরা রয়েছে। ১৩ মেগাপিক্সেল এফ(F)/২.২ স্ট্যান্ডার্ড ওয়াইড(Wide) এর জন্য + ৮ মেগাপিক্সেল এফ/২.২ উল্ট্রা ওয়াইড ১১৮ ডিগ্রির জন্য + ৫ মেগাপিক্সেল এফ/২.৪ ম্যাক্রোর জন্য + ২ মেগাপিক্সেল এফ/২.৪ ডফ অথবা বোকেহ(DOF or Bokeh)। 
  • ব্লুটুথ(Bluetooth) ভার্সন ৫.০ সমর্থন করে। 
  • সহজে বহনযোগ্য।
  • উন্নত এমআইইউআই ১২ (MIUI 12) কাস্টমাইজেশন ইন্টারফেস।
  • ইনফ্রারেড সেন্সর রয়েছে।
  • ব্যাটারি সক্ষমতা ৫০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার(mAh)
  • সাধারণ কিন্তু দৃষ্টিনন্দন ডিজাইন।
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার খুব দ্রুত কাজ করে।
  • মাইক্রো এসডি(SD) কার্ড সমর্থন করে।

রেডমি ৯ এর উপকারী দিক

রেডমি ৯ এর মন্দ দিক

  • গরিলা(Gorilla) গ্লাস প্রটেকশন নেই।
  • অ্যান্ড্রয়েডের সাম্প্রতিক ভার্সনের পরিবর্তে অ্যানড্রয়েড ১০ ভার্সন ব্যবহার করা হয়। 
  • ত্রুটিযুক্ত রিফ্রেশ(Refresh) রেট।
  • ক্যামেরা পারফরম্যান্স আহামরি নয়। 
  • এনএফসি(NFC) এবং ৫জি(5G) সমর্থন পাওয়া যায় না। 
  • উচ্চ কোয়ালিটি বা র‍্যাম সমৃদ্ধ গেমস বা অন্যান্য সফটওয়্যার ব্যবহারে সমস্যা হয়৷ 
  • স্ক্রিন ব্রাইটনেস(Brightness) অনেক কম।
  • ফোন প্রায়ই ল্যাগিং(Lagging) করে।
  • ব্যাটারি রিমুভেবল(Removable) নয়।
  • মোবাইলের বডি পানি নিবারক নয়।

রেডমি ৯ এর মন্দ দিক

শেষ কথা

বেশ কিছু সমস্যা থাকা সত্ত্বেও রেডমি ৯ সুলভ মূল্যে গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী অনেকগুলো সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার(Hardware) ব্যবহারের সুবিধা দিয়ে থাকে। তাই আপনার বাজেট এবং উপরিউক্ত বৈশিষ্ট্যসমূহ আপনার পছন্দসই হলে, আপনি এটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। তবে এখানে লক্ষ্যণীয় যে, মোবাইল ফোনের দাম স্থান,সময়ভেদে কম-বেশি হতে পারে। তাই সঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করেই ফোন বেছে নিন।

তৌহিদ

ABOUT TOUHID

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *